আবার দুই বোনকে শত্রু বানালো বাংলা সিরিয়াল! মন দিতে চাইয়ের নতুন প্রোমোতে দোয়েলের শয়তান রূপ দেখে বিরক্ত দর্শক

জি বাংলায় (Zee Bangla) এই বছরের জানুয়ারি মাসেই সম্প্রচার হওয়া শুরু হয়েছে ‘মন দিতে চাই’ (Mon Dite Chai)। একটু একটু করে জায়গা করে নিচ্ছে দর্শকের মনে। এই ধারাবাহিকের জুটি সম্পূর্ণ নতুন। এর আগে এই জুটিকে পর্দায় কখনও দেখা যায়নি। এই ধারাবাহিকে এই প্রথম দর্শক অভিনেত্রী অরুনিমা হালদার আর অভিনেতা ঋত্বিক মুখার্জীকে জুটিতে পেলেন। শুরুতে দর্শকরা অতটাও পছন্দ করেনি জুটিকে কিন্তু ধীরে ধীরে দর্শকদের মনে জায়গা করে নিচ্ছে তারা।

তিতির আর সোমরাজের বিয়েটা হয়েছিল একে অপরের অসম্মতি নিয়ে। কেউ কাউকে বিয়ে করতে চায়নি। কিন্তু ভাইয়ের ভালোবাসা বাঁচাতে গিয়ে সোমরাজ তিতিরের সিঁথিতে সিঁদুর দিয়ে দেয়। প্রথমে তিতির রাজি না থাকলেও পরে সে মেনে নিতে বাধ্য হয়। এখন তাদের মাঝে ধীরে ধীরে গড়ে উঠছে ভালোবাসার সম্পর্ক।

নতুন প্রোমোতে যা দেখানো হচ্ছে!

সম্প্রতি এই ধারাবাহিকে একটি নতুন প্রোমো ভিডিও সম্প্রচারিত হয়। যা দেখে ভীষণ রেগে যান দর্শকরা। এবার ধীরে ধীরে নোংরামির দিকে এগিয়ে চলেছে ধারাবাহিকের গল্প। সেখানে দেখানো হয়, মালিনী নিজের আলমারিতে কিছু একটা খুঁজছে, আর তখনই পিছন থেকে এসে তিতির বলে, “এগুলোই খুঁজছিলেন তো শাশু মা?” মালিনী বলে, “তুমি আমার ঘর থেকে এগুলো চুরি করেছো?” তিথির তখন বলে যে তার কাছে যে প্রমাণগুলো রয়েছে সেগুলোতে স্পষ্ট লেখা রয়েছে যে সোমরাজ বাবুকে নিজের পরিবারে থেকে আলাদা করার পেছনে রয়েছে মালিনী।

তখন মালিনী বলে, “কিন্তু এটা তো শুধু তুমি আর আমি জানি, বাকিরা জানবে এই হারটা চুরি করতে তুমি এখানে ঢুকেছিলে, আলমারিতে তোমার হাতের ছাপ রয়েছে। আর সাক্ষী দেবে তোমার দিদি।” তখনই পিছন থেকে ঘরে ঢোকে তিতিরের দিদি দোয়েল। নিজের দিদিকে দেখে চমকে যায় তিতির সে ভাবতেও পারে না যে তার দিদি তার সঙ্গে এমনটা করবে। তিতুরের পাশাপাশি যারা আরও বেশি অবাক হয়ে যায় এবং রেগে যায় তারা হলো দর্শক।

দর্শকদের আপত্তি দুই বোনের খারাপ সম্পর্ক নিয়ে

ধারাবাহিকে একই পরিবারের বিয়ে হয়ে যাওয়ার পর দিদি বোনের মধ্যে বিবাদ এর আগে কম দেখেনি দর্শকরা। গাটছড়া ধারাবাহিকই তার একটি অন্যতম প্রমাণ। তবে তিতির আর দোয়েলের মধ্যে এই হিংসার লড়াই একদমই পছন্দ করছেন না ভক্তরা। দুই বোনের এত সুন্দর মিষ্টি একটা সম্পর্ককে ভেঙে মাঝখানে এত বড় নোংরামি ঢোকানোর ফলে এবার মন দিতে চাই খারাপ হয়ে যাচ্ছে দর্শকদের চোখে।

Back to top button