লুকিয়ে সিগারেট খেতে গিয়ে পর্ণার হাতে ধরা পরল বটু! নিম ফুলের মধুতে আজকের পর্ব হবে দারুন জমজমাট

শেষমেষ লুকিয়ে সিগারেট খাওয়ার সময় পর্ণা দেখতে পেল বটুকে! এবার কি তবে তিন্নি আর বটব্যালের প্ল্যান আসবে তার সামনে?

বর্তমানে জি বাংলার (Zee Bangla) পর্দায় বেশ জমে উঠেছে নিম ফুলের মধু (Neem Phuler Modhu)। অভিনেতা রুবেল দাস ও অভিনেত্রী পল্লবী শর্মার জুটি ধীরে ধীরে দর্শক মনে জায়গা করে নিয়েছে। শুরু হবার পর থেকেই ধারাবাহিকটি তার আকর্ষণীয় প্লট দিয়ে মন জয় করে নিয়েছে দর্শকদের। সাদামাটা ফ্যামিলি ড্রামা অর্থাৎ পারিবারিক কাহিনী নিয়েই গড়ে উঠেছে এই ধারাবাহিক। ধারাবাহিকের প্রধান আকর্ষণ নায়িকা পর্ণা।

বর্তমানে তার শ্বশুরবাড়িতে ঢুকে পড়েছে পর্ণার চরম শত্রু বটব্যাল। পর্ণাকে জব্দ করতে সৃজনের চাকরিটাও খেয়ে ফেলেছে তিন্নি। আর এখন তার মূল উদ্দেশ্য সৃজন এবং পর্ণার মাঝে পাকাপাকিভাবে ভাঙ্গন তৈরি করা। যার জন্য তিনি বাড়ি বয়ে নিয়ে এসেছে জেল থেকে পালানো আসামী বটব্যালকে।

পর্ণাকে মারতে গেলো বটব্যাল

এ দিনের পর্বে দেখা যায় সৃজনকে জলখাবার দিয়ে পর্ণা তাড়াহুড়ো করে অফিসে যাওয়ার জন্য রেডি হতে থাকে। অন্যদিকে সিঁড়িতে একগাদা তেল ছড়িয়ে দেয় বটু। সে চেয়েছিল তাড়াহুড়ো করে নামতে গিয়ে পর্ণা যেন সিঁড়ি থেকে পড়ে যায়। কিন্তু তেলে পা দেওয়ার আগেই তার মনে পড়ে সে একটা ফাইল ঘরে ফেলে এসেছে। সে ঘরের উদ্দেশ্যে রওনা দিলে সেখানে চলে আসে জেঠু আর পর্ণার জায়গায় সিঁড়ি দিয়ে পা পিছলে পড়ে যায় সে। পর্ণা আন্দাজ করছিল এই তেলটা হয়তো জেঠুর জন্য ছড়ানো হয়নি।

সিগারেট খেতে গিয়ে ধরা পড়ল বটব্যাল

অন্যদিকে প্ল্যান সাকসেসফুল না হওয়ায় বিরক্ত হয়ে ঘরে চলে যায় ফুল মাসি অর্থাৎ বটব্যাল। সেখানে গিয়ে একপ্রকার ছটফট করতে থাকে সে। সেই সময় ঘরে ঢুকে পড়ে তিন্নি। বটু কাকে বলে বেশ কিছুদিন ধরে তার পেটটা পরিষ্কার হচ্ছে না। তখন তিন্নি তাকে বলে একটা সিগারেট নিয়ে কল তলায় চলে যাও। তিন্নির আদরের বটু সিগারেট খেয়ে কাজকর্ম সেরে ঘরে ঢুকলে কলতলায় যায় জেঠু।

এই সিগারেটের গন্ধ পেয়ে ভীষণ রেগে যায়। প্রথমে জেঠু ভাবে হয়তো চয়ন সিগারেট খেয়েছে কিন্তু পরে জানা যায় এর আগে কলতলায় গিয়েছিল তিন্নির ফুল মাসি। এই শুনে সবাই অবাক মেয়ে মানুষ হয়ে সিগারেট খান নাকি উনি? তখন পর্ণার জা তাকে বলে উনি অনেকদিন বিদেশে ছিলেন, আর বিদেশে এরকম তো হয়েই থাকে। কিন্তু এরপরেও পর্ণার মন থেকে কিছুতেই সন্দেহ দূর হয় না। সৃজনের কাছে গিয়ে সে বলে তার এবার সন্দেহ টা বেশ বেড়ে যাচ্ছে। তবে কি এবার বটুকে ধরে ফেলবে পর্ণা?

Back to top button