বিয়েতে রুপোর কাজের বেনারসী পড়বেন দর্শনা! তার দাম শুনলে চোখ কপালে উঠবে আপনারও

১৫ তারিখ এই শহর মেতে উঠতে চলেছে টলি সুন্দরী দর্শনা বণিক ও অভিনেতা সৌরভ দাসের বিয়ে নিয়ে। সকলেই জানতে উৎসুক কী কী চমক থাকছে অনুষ্ঠানে। জীবনের এই সুন্দর মুহূর্তটা উপভোগ করতে অভিনেত্রী এখন বড়ই ব্যস্ত। তবে আপনি কি জানেন দর্শনা কী পড়ছেন বিয়েতে? এক্সক্লুসিভ এই পোশাকের দামই বা কত?

প্রস্তুতি এখন একেবারে তুঙ্গে। কী অনুভূমি দর্শনার? তিনি বললেন, ‘ওহ মাই গড! শ্যুটিংয়ের সময় যেটা হয় ভাবতে থাকি যে কোনওরকমে আগের দিন সব গুছিয়ে নিয়ে চলে যাব। কিন্তু, এক্ষেত্রে বিষয়টা একদম আলাদা। কিছুতেই কাজ শেষ হচ্ছে না। আর খালি মনে হচ্ছে এটা দরকার ওটা দরকার। এখনও হল না কেন। কী হবে।’

অন্যতম টলি সুন্দরীর বিয়ে হবে আর একটু অন্যরকম আয়োজন থাকবে না সেটা কীকরে হয়। সাজতে তিনি বরাবরই বেশ ভালোবাসেন। দর্শনার কথায়, ‘মেকআপ আর চুলের জন্য আমি এবারও বাবুসোনার উপর ভরসা রেখেছি। ও যা করবে সেটাই ভালোলাগবে আমি বিশ্বাস করি। আজ সাজ বলতে একেবারে সাবেকি। শাড়ি-গয়নার প্রতি আমার এমনিই একটু ঝোঁক আছে। আমি সাজতেও খুব ভালোবাসি। তাই বরাবরই চেয়েছিলাম বিয়ের বেনারসিটা যেন খুব স্পেশাল হয়।’

বিয়ের জন্য কোন স্পেশাল শাড়ি কীভাবে বানালেন দর্শনা? ‘অনেক বছর পরেও যেন থেকে যায় একইরকমভাবে শাড়িটা এটাই চেয়েছিলাম। তাই একেবারে সিঁদুরে লাল রঙের শাড়ি বেছেছি। যেটা আমি স্পেশালভাবে অর্ডার দিয়ে বানিয়েছি। আগেকার দিনে যেমন হত ঠাকুমা-দিদিমাদের কাছেও থাকত, ঠিক তেমনই আসল জরি দিয়ে বানানো। সেই সময় সোনা-রুপো দিয়ে বানানো হত। আমিও তেমনই রুপোর জরি দিয়ে তৈরি শাড়ি পরব। তবে রুপোর জরিতে সোনার জল করা থাকবে। একেবারেই অ্যান্টিক পিস বলা যেতে পারে।’

এমন শাড়ি সচরচোর কেউ বানায় না। তাই দামটাও খানিক নজরকাড়া। লাখের উপর দাম অভিনেত্রীর বিয়ের বেনারসির। যে শাড়ি নাকি কুড়ি বছর পর পলিশটা চলে যেতে পারে। মানে সোনালি রংটা খানিক কালচে হয়ে যাবে ঠিকই। তবে তখন আরও ভালো দেখতে লাগবে।

Back to top button