সূর্য সোনার অভিনয়ে মুগ্ধ দর্শক, এতো সুন্দর কাস্টিং থেকে অভিনয়ের জন্যই অনুরাগের ছোঁয়ার জনপ্রিয়তা শীর্ষে

স্টার জলসার (Star Jalsha) বর্তমান জনপ্রিয় সিরিয়াল ‘অনুরাগের ছোঁয়া’ (Anurager Chowa)। একটানা বেঙ্গল টপার হয়েছে এই মেগা। জি বাংলার ‘মিঠাই’ ধারাবাহিকের পর এই ধারাবাহিকও দর্শকের মনে বিশেষ জায়গা করে নিয়েছে। আসলে শুধু গল্প নয়, গল্পের থেকেও বেশি শিল্পীদের অভিনয়ের গুনে অনুরাগের ছোঁয়া হয়ে উঠেছে এক নম্বর। ছোট থেকে বড় প্রত্যেকের অভিনয় অনবদ্য। প্রত্যেকেই নিজেদের চরিত্রে প্রাণ ঢেলে দিয়েছেন।

বর্তমানে ধারাবাহিকের গল্পে যেভাবে বাবা-মায়ের সম্পর্কের টানাপোড়েনে বাচ্চাদের ক্ষতির পরিমাপ বোঝানোর চেষ্টা চলছে তা সত্যি অভাবনীয়। এই ধরণের গল্প অনেকাংশেই বাস্তবকে তুলে ধরে দর্শকদের সামনে। সিরিয়াল মানেই বাস্তবের সাথে মিশে থাকা একটা সুক্ষ গল্প। যার সম্পূর্ণটা বাস্তবিক না হলেও কিছুটা তো বটেই।

ধারাবাহিকে সূর্য-দীপার সম্পর্কের টানাপোড়েন, মিশকার একতরফা ভালোবাসা আর দুই ছোট্ট শিশুর সম্পর্কের জালে পরে শৈশব হারানো। সব মিলিয়ে এক কথায় অসাধারণ। শিশুশিল্পী হিসাবে ছোট্ট সোনা আর রুপা অর্থাৎ মিশিতা আর সৃষ্টির অভিনয় তো দর্শকের নজর কারে বারংবার। দর্শক মুগ্ধ হয়ে দেখতে থাকেন তাদের। তবে গল্পে কিছুতেই সত্যিকে জিততে দেওয়া হচ্ছেনা।

বর্তমানে ধারাবাহিটির গল্প অনুযায়ী সোনাকে ভুল বোঝায় দীপার সৎ মা। সোনা কে বলা হয় সে সেনগুপ্ত বাড়ির কেউ নয়। তার মা তাকে ফেলে দিয়ে চলে যায় আর তাকে কুড়িয়ে আনে সূর্য। এই কথা গুলো শোনার পর থেকেই মানসিক যন্ত্রণায় ভুগতে থাকে ছোট্ট সোনা। তার কষ্ট দেখে চোখে জল চলে আসে দর্শকদেরও।

নিজের মধ্যে থাকা কষ্টগুলোকে অত্যন্ত সুন্দরভাবে ফুটিয়ে তুলেছে সোনা। এই বয়সে এত নিখুঁতভাবে এত কষ্টের সিন একেবারে সাবলীল ভাবে ফুটে উঠেছে তার মধ্যে। সোনার কান্না গুলো যেন একদম আসল। এটুকু বাচ্চার মধ্যে এমন অভিব্যক্তি দেখে অবাক দর্শক। সোনার দক্ষতা এবং অতুলনীয় অভিনয় মুগ্ধ করেছে দর্শকদের।

Back to top button