‘প্রতিদিনের সূর্যের রাগ দেখানো আর দীপার অপমানিত হয়ে চলে যাওয়া’, আর কোনো গল্প নেই! রোজ এক গল্প দেখতে দেখতে বিরক্ত দর্শক

এই মুহূর্তে দাঁড়িয়ে স্টার জলসার সবচেয়ে জনপ্রিয় ধারাবাহিক হচ্ছে অনুরাগের ছোঁয়া। প্রায় প্রতি সপ্তাহে টিআরপি টপার হয় এই ধারাবাহিক। ধারাবাহিকের নায়ক নায়িকার মধ্যে কোন বনিবনা না থাকলেও তাদের দুই মেয়ে সোনা রুপার জন্য এখনো অব্দি নিজের জায়গা ধরে রেখেছে এই ধারাবাহিক। তবে খুব বেশি দিন সেটা আর সম্ভব নয় তারই আভাস পাওয়া গেল দর্শকের কাছ থেকে।

প্রতিদিন একঘেয়ে গল্প কার ভালো লাগে? অনুরাগের ছোঁয়া ধারাবাহিকে দীর্ঘ কয়েক মাস ধরে চলে আসছে একই প্লট। নেই কোন নতুনত্ব। সেই একভাবে দীপাকে অপমান করে চলেছে সূর্য। সবার সামনে বারবার অসম্মানিত হয়েও বাচ্চা দুটোর মুখ চেয়ে চুপ করে আছে দীপা। মিশকা বারবার শয়তানি করেও পার পেয়ে যাচ্ছে। কিছু কিছু বদ পরিকল্পনায় অসফল হলেও কখনোই ধরা পড়ছে না। তার প্রতি সূর্যের অগাধ বিশ্বাস ফুরোনোর নাম নেই।

অন্যদিকে সূর্যের ক্রমাগত দুর ব্যবহারে শেষ হয়ে যাচ্ছে দীপা। ভালো নেই সূর্যের মা-বাবাও। এর মাঝে অসম্ভব কষ্ট পাচ্ছে রুপা। বোনের সাথে থাকতে পারিনা সে, বাবাকে বাবা বলার অধিকার নেই তার, এত ধনী বাড়ির মেয়ে হয়েও দিন দরিদ্রের মতো জীবন যাপন করতে হচ্ছে তাকে। আর প্রতিদিন নিজের মায়ের অপমান চোখের সামনে দেখেও কিছু করতে পারছে না সে। অনেক বেশি দুর্বিষহ হয়ে উঠেছে রুপার ছোটবেলা।

অন্যদিকে মাকে না পেয়ে পাগল হয়ে যাচ্ছে সোনা। যতবার নিজের ফুল মাকে আঁকড়ে ধরে থাকার চেষ্টা করছে ততবারই সূর্য কোনো না কোনো ভাবে দুজনকে আলাদা করে দিচ্ছে। গোটা পৃথিবীর শুদ্ধ লোক তাকে বোঝাতে এলেও সে বুঝতে পারছে না কোন কিছুই। জেদে রাগে অভিমানে একেবারে অন্ধ হয়ে গেছে সূর্য। তার সাথে বোধ বুদ্ধি ও লোপ পেয়েছে তার।

এইরকম একটা প্লট আর পছন্দ করছেন না ভক্তরা। দর্শকদের মধ্যে কেউ কেউ কমেন্ট করেছেন “শেষ হওয়া উচিত বিরক্তি কর লাগছে”, আবার কেউ লিখেছেন “টিআরপি হাই থাকলে এই গল্প চেঞ্জ করবে না”। আবার অনেকে বলছেন “সোনা রুপার জন্যই ধারাবাহিকটি দেখা”। আচ্ছা বোঝাই যাচ্ছে এই গল্প আর পছন্দ করছে না দর্শকরা। এবার যদি খুব তাড়াতাড়ি নির্মাতারা কোন সুরাহা না করেন, তাহলে শেষ দিন খুব তাড়াতাড়ি ঘুমিয়ে আসতে চলেছে এই ধারাবাহিকের।

Back to top button