জ্যাস সান্যালের ঘেরাটোপের মধ্যেই হয়ে গেলো আরও একটা খু’ন! বাবার খু’নের ব’দ’লা নিল দর্পণা, এবার কী করবে জ্যাস

কৌশিকীর বিয়ের আগে জোড়া খু'নের কেস হচ্ছে আরও জটিল! জগদ্ধাত্রী কি পৌঁছাতে পারবে ঠিক সময়ে?

বর্তমানে জি বাংলা (Zee Bangla) চ্যানেলের সবচেয়ে জনপ্রিয় ধারাবাহিকটি হচ্ছে জগদ্ধাত্রী (Jagaddhatri)। ধারাবাহিকটি যবে থেকে শুরু হয়েছে ঠিক সেই দিন থেকে টিআরপি (TRP) তালিকায় নিজের নাম প্রথম পাঁচের মধ্যে পাকা করেছে। ধারাবাহিকের গল্পের অভিনবত্ব মন জয় করেছে ভক্তদের (Audience)

বর্তমানে ধারাবাহিকে চলছে কৌশিকীর বিয়ে। গোটা মুখার্জি পরিবার মেতে উঠেছে এই বিয়েকে কেন্দ্র করে। মেয়েকে বাবার ভালোবাসা ফিরিয়ে দিতে পুনরায় নিজের প্রাক্তন স্বামীকেই বিয়ের জন্য রাজি হয়ে যায় কৌশিকী মুখার্জি। কিন্তু এই সমস্ত আচার অনুষ্ঠান তার একদমই পছন্দের নয় তাই সে মেহেন্দি পরতে চায়নি। কিন্তু কৌশিকীর বোনেরা মিলে কাঁকনকে দিয়ে ঠিক কাজ হাসিল করিয়ে নেয়।

অন্যদিকে শহর ছেড়ে পালানোর ফন্দি আটতে থাকে নূরী আর তার স্বামী ডোডো। নূরী তৈরি হয়ে নেয় শহর ছেড়ে পালিয়ে যাওয়ার জন্য ঠিক সেই সময় ঘরে ঢোকে জগদ্ধাত্রী। সে সাবধান করে দিয়ে বলে সে এখান থেকে যদি পালানোর চেষ্টা করে তাহলে কিন্তু খুব খারাপ হয়ে যাবে। জগদ্ধাত্রী তার কথার মাধ্যমে বুঝিয়ে দেয় নূরী যে বিবাহিত আর তার পদবী নায়েক এই সবটাই জেনে গেছে সে।

জগদ্ধাত্রী ঘর থেকে বেরোলেই ডোডোকে ফোন করে নূরী। সে জানায় জগদ্ধাত্রী সব জেনে গেছে। তখন তার স্বামী তাকে আশ্বস্ত করে যে এখান থেকে একবার পালিয়ে মুম্বাই চলে যেতে পারলেই আর ওই জগদ্ধাত্রী তাদের কিছু করতে পারবে না। ডোডো বলে “আমি গিয়ে ফোন করবো রেডি হয়ে থাকো।” কিন্তু দর্পণা সেটা আর হতে দেয় না। বাবার মৃত্যুর প্রতিশোধ নিতে ডোডোর মাথায় জোরে আঘাত করে দর্পণা। আর তারপর বডিটাকে অন্য জায়গায় সরিয়ে নিয়ে যায়।

জগদ্ধাত্রী বুঝতে পারছিল এমনই কিছু হতে চলেছে। তাই তড়িঘড়ি রেডি হয়ে এই ব্যাপারে খোঁজখবর নিতে উদ্যত হলে সাধুদা তাকে জানায় দর্পণা নিজের ঘরে নেই। আর ডোডোকেও পাওয়া যাচ্ছে না। জগদ্ধাত্রীর বুঝতে বাকি থাকেনা যে কী হয়েছে বা কী হতে চলেছে। এবার কি তবে দর্পণার পরবর্তী শিকার নূরী? দর্পনার হাত থেকে তাকে কি বাঁচাতে পারবে জগদ্ধাত্রী?

Back to top button