“বাংলা ছবির স্টারদের অ’ধঃ’প’ত’ন হয়েছে!” হঠাৎ বাংলা ছবির প্রতি ক্ষো’ভ উ’গ’রে দিলেন অরিত্র!

সিনেমা মহলের অত্যন্ত পরিচিত মুখ অভিনেতা অরিত্র দত্ত বণিক (Aritra Dutta Banik)। মেগা সিরিয়াল থেকে উত্তরণ বড়পর্দায় দাপিয়ে কাজ, দীর্ঘদিন ধরে সিনেমায় দাপুটে অভিনয় করেছেন অরিত্র। ২০০৩ সালে ‘তিথির অতিথি’ মেগা সিরিয়ালে অভিনয় করে পর্দায় অভিষেক হয় তার। মিঠুন চক্রবর্তীর ডান্স বাংলা ডান্স রিয়েলিটি শো-এর মাধ্যমে সর্বসমক্ষে পরিচিত হয়ে ওঠেন অরিত্র দত্ত বণিক। এরপর এক ইতিহাস। অসংখ্য ছবিতে সাবলীল অভিনয় দেখা যায় তার। সেই অরিত্র এবার খুঁজলেন ‌ বর্তমান বাংলা ছবির খামতি কোথায়।

বাংলা ছবির বর্তমান অবস্থা নিয়ে বারবার মুখ খুলেছেন তারকারা। বিশেষ করে ছবি মুক্তির কয়েক দিনের মধ্যেই খাঁ খাঁ হল দেখে বেজায় চিন্তায় টলিউড সিনেমা মহল। ঠিক কোথায় খামতি হচ্ছে? কেন বাংলা সিনেমা দেখতে হলে ভিড় করছেন না আমজনতা? বাংলা সিনেমার করুন পরিণতি কেন? দীর্ঘদিন ইন্ডাস্ট্রিতে থাকা অরিত্র দত্ত বণিক দিলেন তার উত্তর। বাংলা ছবির জনপ্রিয়তা হারানোর পিছনে অনেকটাই দায়ী সিনে ইন্ডাস্ট্রি স্বয়ং।

মাঝে অনেকদিন পর্দা থেকে বিরতি নিয়েছিলেন অরিত্র। এই ব্রেকটা তার দরকার ছিল বলেই জানান তিনি। অভিনয়ের পাশাপাশি সম্পাদনাও করেন অরিত্র দত্ত বণিক। বাংলা সিনেমাকে নিয়ে অনেক আশা ভরসা তাঁর। আবার বাংলা সিনেমার করুন পরিণতি তাঁকে ভাবিয়ে তোলে। সাম্প্রতিক এক সাক্ষাৎকারে অভিনেতা বলেন, যে ইন্ডাস্ট্রিতে এত বছর ধরে তিনি কাজ করেছেন, সেই ইন্ডাস্ট্রি হয়ত কখনো আঙুল তুলে হেসে ওঠে বাংলা ছবির লোক বলে! আর এই মানসিকতার বিরুদ্ধে প্রশ্ন তুলেছেন অরিত্র।

একটা সময় ছিল যখন সিনেমায় টিকিট ‌তুলনায় অনেক কম ছিল। পঞ্চাশ, ষাট, সত্তর টাকা টিকিট কেটে সিনেমা দেখা যেত। এখন সেই টিকিটের দাম বেড়েছে প্রায় আড়াইশো টাকার কাছাকাছি।

মধ্যবিত্ত মানুষ কীভাবে পারবে? প্রশ্ন তুলেছেন অভিনেতা। বাংলা ছবির প্যাটার্ন গুলি অনেকটা একই রকম হয়ে যাচ্ছে। শহুরে মধ্যবিত্তদের গল্প।যার সঙ্গে মিল পাচ্ছেন না গ্রাম ও মফস্বলের মানুষ। এক ধরনের গল্পে আগ্রহ হারাচ্ছে বাংলা সিনেমা।

আরো পড়ুন: গিনির সব চালাকি ধরে ফেললো গীতা! অন্যায়ের শাস্তি দিতে নিজের দিদিকে কাঠগড়ায় তুলল সে!

বর্তমানে কোন নতুন নায়ক দেখা যায় না, আসছে না নতুন কলাকুশলীরাও। এই পরিস্থিতি যথেষ্ট ভয়াবহ বলে মনে করছেন তিনি। বর্তমানে শহর কলকাতার হোর্ডিং দখল করে থাকেন বাংলাদেশি নায়ক নায়িকারা। সেখানে টলিউড ইন্ডাস্ট্রি নেই কেন? এই পরিস্থিতির বিরুদ্ধেও আঙুল তুলেছেন অরিত্র। বাংলা সিনেমা ইন্ডাস্ট্রি কোথাও গিয়ে শিল্পসত্তা হারাচ্ছে। সকালবেলা ঘুম থেকে উঠে ফটোজেনিক ফ্রেমে শট দেওয়াই যেন একমাত্র কর্তব্য হয়ে দাঁড়িয়েছে। সব মিলিয়ে অরিত্র বলেন, বাংলার সাধারণ মানুষ সিনেমার প্রতি কৌতূহল হারাচ্ছেন। আর সেটাই বাংলা সিনেমার হল ভর্তি না হওয়ার অন্যতম প্রধান কারণ।

Back to top button