লাইভে এসে মিঠাই রানীর প্রধান নিয়ে মুখ খুললেন আদৃত! তার বক্তব্যে হইচই পড়েছে টলি পাড়ায়!

এক বছর আগে জি বাংলার (Zee Bangla) পর্দার সম্প্রচারিত হতো জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘মিঠাই’ (Mithai)। এই ধারাবাহিকের মধ্যে দিয়েই জনপ্রিয়তা পায় ধারাবাহিকের নায়ক নায়িকা, অর্থাৎ আদৃত রায় এবং সৌমিতৃষা কুন্ডু। তখন থেকেই দর্শক মনে জায়গা করে নিয়েছিল আদৃত সৌমির জুটি। আড়াই বছর ধরে চ্যানেলে রাজ করেছিল এই মেগা। শুধু তাই নয়, একটানা ৫২ সপ্তাহ ছিল টিআরপি টপার। এখনো এই সিধাই জুটি নিয়ে দর্শকদের মাঝে উন্মাদনা তুঙ্গে। সম্প্রতি ইনস্টাগ্রাম লাইভে এসেছিলেন আদৃত। সেখানেই সৌমির প্রধান নিয়ে তার বলা বক্তব্য এখন হইচই পড়েছে নেট পাড়ায়।

অনেকেই হয়তো জেনে থাকবেন, বাস্তবে অদৃতের সাথে সৌমির সম্পর্ক ছিল আদায় কাঁচকলায়। মিঠাই-এর শেষ দিকে এসে সেটে কথা বন্ধই থাকত সৌমিতৃষা আর আদৃতের। তারা পর্দায় একে অপরের সাথে ঠিক যতটা মিষ্টি করে কথা বলতেন বাস্তবে বেশিরভাগ সময় বন্ধ থাকতো তাদের কথা। যদিও প্রকাশ্যে এই নিয়ে মুখ খোলেননি কেউই। তবে আদৃত আর সিরিয়ালে দিদির চরিত্রে অভিনয় করা কৌশাম্বি চক্রবর্তীর মধ্যে ‘প্রেম’ সামনে এলে অবস্থা আরও খারাপ হয়।

মিঠাই শেষ করেই বড় পর্দায় ঝাঁপ মারেন সৌমিতৃষা। সুযোগটা অনেকদিন ধরেই তার কাছে এসে বসেছিল। কিছু দিন আগেই তাঁকে দেখা গিয়েছে প্রধান সিনেমায়। যা মুক্তি পেয়েছিল শীতেরর ছুটিতে, ২৫ ডিসেম্বরের সপ্তাহে। প্রায় ৫ কোটির মতো ব্যবসা করেছে এই প্রধান। এখানে সৌমিতৃষার নায়কের ভূমিকায় ছিলেন বাংলার সুপারস্টার দেব। দর্শকদের থেকে খুব ভালোবাসা পেয়েছে দেব আর সৌমিতৃষার জুটি। আদৃতের নতুন কাজ এখনো অবধি সামনে আসেনি। তবে জানা গিয়েছে এসভিএফের পরের সিনেমা পাগল প্রেমী-তে নায়ক হিসেবে দেখা যাবে আদৃতকে।

বড় পর্দায় এখনো মুক্তি পায়নি তার ছবি। মুক্তির আগেই আদৃত অ্যাকাউন্ট খুললেন ইনস্টাগ্রামে। তিনি সমাজমাধ্যমে তেমন একটা সক্রিয় নন, কিন্তু এইবার দর্শকদের সাথে আরও বেশি করে সম্পর্ক স্থাপনের জন্য এই পদক্ষেপ নেন তিনি। এতদিন ফেসবুকে একটা অ্যাকাউন্ট থাকলেও সেখানেও খুব একটা সক্রিয় থাকতেন না। নতুন খোলা ইনস্টা আইডি থেকে লাইভে এসে আদৃত কথা দিলেন, এবার থেকে আসবে নিয়মিত পোস্ট।

লাইভেই এক অনুরাগী অভিনেতা আদৃত রায়কে প্রশ্ন করেন, প্রধান সিনেমাটি দেখেছেন কি না! যাতে আদৃত বলেন, “দেখা হয়নি। তবে আমি অবশ্যই দেখব। তখন আমি আসলে শ্যুট (পাগল প্রেমীর) নিয়ে ব্যস্ত ছিলাম।”। এরপর আরেকজন তাকে প্রশ্ন করেন সৌমিতৃষার সঙ্গে কথা হয় কি না! জবাব আসে, “সৌমিদির (যেহেতু সেই অনুরাগী সৌমিতৃষাকে সৌমিদি বলেই উল্লেখ করেছিলেন) সঙ্গে সেভাবে কথা হয় না। ওই হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে আছি সবার সঙ্গে। কিন্তু আলাদাভাবে সেভাবে কারও সঙ্গেই কথা হয় না।”

Back to top button