গলা ধাক্কা দিয়ে মারতে মারতে বের করে দিল স্মার্ট দিদি নন্দিনী! ভিডিও দেখে আতঙ্কিত দর্শক

আজকাল সোশ্যাল মিডিয়ার যুগে কারুর ক্ষেত্রেই জনপ্রিয় হয়ে ওঠা কষ্টকর ব্যাপার নয়। সোশ্যাল মিডিয়ার ফলে যে কোন মুহূর্তে যে কেউ ভাইরাল হয়ে পড়তে পারে। শুধু তার জন্য দর্শকদের দৃষ্টি আকর্ষণ করার ক্ষমতা থাকতে হবে।

কিন্তু এবার আর নন্দিনী নন্দিনী করে মাতামাতি নয়। বরং এবার তাকে ঘিরে অন্য ধরনের আলোচনা তৈরি হলো। এর কেন্দ্রে স্মার্ট দিদি নন্দিনীর একটি ভিডিও যেটি ভাইরাল হয়ে গেছে। ফ্যাশন ডিজাইনিং নিয়ে পড়াশোনা করা নন্দিনী মায়ের অসুস্থতার খবর পেয়ে কলকাতায় এসে বাবা সঙ্গে দোকানের দায়িত্ব গ্রহণ করল।

এখন রাতারাতি সেলিব্রেটি হয়ে উঠেছে সেই দিদি। তার দোকানে প্রায় প্রতিদিন নতুন নতুন ব্লগারের আনাগোনা চলছে। তবে সম্প্রতি মদন মিত্রও ওই দোকানে যাবার পরে আলাদাই উন্মাদনা তৈরি হয়েছে সেই পাইস হোটেলকে ঘিরে। তবে এসবের মাঝে এবার বাড়াবাড়ি হচ্ছে বলে দাবি করে বসে দর্শকরা।

সম্প্রতি বেশ কিছু বচসার ভিডিও দেখা গিয়েছে যেখানে নন্দিনী দিদি নিজেও জড়িয়ে পড়েছে। এক ইউটিউবার দাবি করে যে তাঁকে নাকি ভিডিও করতে দেয়নি নন্দিনী। অন্যদিকে দেখা যাচ্ছে একজনকে ধরে সিট থেকে তুলে দিলো নন্দিনী। এই ভিডিও ভাইরাল হয়ে গেছে।

পরে এটা নিয়ে নন্দিনী নিজে জানায় যে ওই লোকটি মদ্যপ অবস্থায় এসেছিল ওখানে। তাকে খাবার দিতে না করে আর বসতেও বারণ করা হয়। কিন্তু জোর করে সে গ্রাহকদের মাঝে বসে পড়ায় বাকিদের অসুবিধা হচ্ছিল। তাই নন্দিনী বাধ্য হয়েছে ওই পদক্ষেপ নিতে।

Back to top button